দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্র দায়ী! মোদি-শাহের নাম নিয়ে আক্রমণ ফিরহাদের! - VedasBD.com

Breaking

Friday, 5 June 2020

দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্র দায়ী! মোদি-শাহের নাম নিয়ে আক্রমণ ফিরহাদের!


করোনা সংক্রমণের জন্য কেন্দ্রই দায়ী।’ শুক্রবার অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদির নাম করে সরাসরি এই অভিযোগ করেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। অন্যদিকে, গুজরাট উত্তরপ্রদেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি। তাই নিজেদের অপমান ঢাকতে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে বেশি করে করোনা ঢোকাচ্ছে, বলেও এদিন আক্রমণ করেন মন্ত্রী। তবে যে বাঙালিরা ব্রিটিশের কাছে মাথা নত করেনি, সেই বাঙালি অন্তত বিজেপির কাছে মাথা নত করবে না বলে এমনই আত্মবিশ্বাস পুরমন্ত্রীর। এদিন বিজেপিকে এক হাত নিয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘দিল্লির বাসস্ট্যান্ডে এত শ্রমিক ভিড় করেছিল, উত্তরপ্রদেশে শ্রমিকদের গায়ে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়েছিল, মুম্বাই হাজার হাজার শ্রমিক বাড়ি ফেরার জন্য স্টেশনে এসে জড়ো হয়েছিল। আপনারা খালি হাততালি দিয়েছেন, মানুষকে বাড়ি ফেরানোর জন্য সময় দেননি। আর এখন আপনারা শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনকে করোনা স্পেশাল ট্রেন বানিয়ে পশ্চিমবাংলায় ঢোকাচ্ছেন। যদিও শুধুমাত্র বিজেপিকে দোষারোপ করে তিনি থেমে যাননি মন্ত্রী। এদিন সরাসরি মোদি ও অমিত শাহর নাম নিয়ে কটাক্ষ করেন ফিরহাদ হাকিম।

.
এছাড়াও ফিরহাদ হাকিম রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মন্ত্রী। দিলীপ ঘোষকে উদ্দেশ্য করে ফিরহাদ হাকিম বলেন, ২৯ তারিখ যখন মুখ্যমন্ত্রী লকডাউন শিথিল করার কথা বললেন তখন তিনি ঝামেলা করলেন। এদিকে ঠিক তার পরের দিন যখন কেন্দ্র লকডাউন শিথিল করার কথা বলল তখন তার ঠোঁট মুখ ভোঁতা হয়ে গেল।’ এরপরে ফের একবার কেন্দ্রের পরিকল্পনাহীনতার দিকে আঙ্গুল তুলে, ‘যোগদান হওয়ার আগেই যদি পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানো যেত তাহলে এইভাবে রাজ্যে সংক্রমণ বাড়ত না। পরিকল্পনা করে মোদি রাজ্যকে বিপদে ফেলল।’
.
অন্যদিকে, এই পরিস্থিতিতেও বিজেপির সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন ফিরহাদ হাকিম। হুগলির তেলিনীপাড়া যে দাঙ্গার ছবি সামনে এসেছিল সেই প্রসঙ্গ টেনে ফিরহাদ বলেন, ‘হুগলির তেলেনি পাড়ায় পাড়ায় পাড়ায় ঝামেলাকে সাম্প্রদায়িক ছাপ দিয়েছে বিজেপি। পাকিস্তানে হিন্দু বিরোধী ভিডিওকে তেলিনিপারা ভিডিও বলে চালাতে চেয়েছিল তারা। পাশাপাশি তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘বাংলাকে উত্তরপ্রদেশ গুজরাট হতে দেব না।’

No comments:

Post a comment