‘নাইট কার্ফু’ নিয়ে আপত্তি মমতার, আরও অধিক সংক্রমণের পথ প্রশস্ত হল আশঙ্কা বিজেপির! - VedasBD.com

Breaking

Monday, 18 May 2020

‘নাইট কার্ফু’ নিয়ে আপত্তি মমতার, আরও অধিক সংক্রমণের পথ প্রশস্ত হল আশঙ্কা বিজেপির!


করোনা মোকাবিলার সঙ্গে সঙ্গেই জনজীবনকে ক্রমশ স্বাভাবিক করে তুলতে সোমবার থেকে শুরু হওয়া দেশজোড়া চতুর্থ দফার লক ডাউনে সারাদিনের পরিবর্তে শুধু সন্ধ্যা সাতটা থেকে সকাল সাতটা পর্যন্ত নাইট কারফিউ ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের গাইডলাইনে বলা হয়েছে, ৩১ মে পর্যন্ত সারা দেশে ‘নাইট কার্ফু’ কার্যকর হবে। উদ্দেশ্য, যাতে পরিষেবা ও অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপে গতি আনার পাশাপাশি অযথা মেলামেশায় লাগাম টানে সংক্রমণে কিছুটা হলেও লাগাম টানা য়ায়। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের সেই ঘোষণার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, এরাজ্যে নাইট কারফিউ জারি করা হচ্ছে না।
.
রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে রাজ্যে লকডাউনের উদ্দেশ্য আরও ব্যাহত হল এবং সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পথ পরিষ্কার হল বলে বিরোধীদের আশঙ্কা। সোমবার বিকেলে নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মানুষকে দমবন্ধ করে রাখা ঠিক নয়। আমরা সরকারি ভাবে কার্ফু ঘোষণা করছি না। খুব ইমার্জেন্সি ছাড়া কার্ফু বলা যায় না।
.
এদিকে নাইট কার্ফু নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর  সমালোচনা করেছে বিজেপি। রাজ্য বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, ‘এমনি কার্ফু আর নাইট কার্ফুর ফারাক বোঝার বোধ মুখ্যমন্ত্রীর নেই। কেন্দ্রীয় সরকার কার্ফু শব্দটিকে ব্যবহার করে সন্ধের পর লকডাউনকে আরও কঠোর ভাবে প্রয়োগ করতে চেয়েছে। কারণ বাংলা-সহ দেশের প্রায় সব রাজ্যেই দেখা যাচ্ছে একশ্রেণির উশৃঙ্খল মানুষ সূর্য ডুবলেই জটলা করছেন মহল্লায় মহল্লায়। মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের আরও অক্সিজেন জুগিয়ে দিলেন। আইন ভাঙতে উস্কানি দিলেন।’

No comments:

Post a comment