রাজনীতি করবেন না বলে মমতা নিজেই রাজনীতি করছেন, পাল্টা ৯ দফা অভিযোগ দিলীপ ঘোষের! - VedasBD.com

Breaking

Thursday, 28 May 2020

রাজনীতি করবেন না বলে মমতা নিজেই রাজনীতি করছেন, পাল্টা ৯ দফা অভিযোগ দিলীপ ঘোষের!


একুশের বিধানসভা নির্বাচনকে টার্গেট করে কোমর বেঁধেছে রাজ্য বিজেপি। ৯ পাতার চার্জশিট পেশের পর এবার ৯ দফায় ফেসবুক লাইভে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণের তীব্রতার ঝাঁঝ বাড়িয়েছেন দিলীপরা। বৃহস্পতিবার সরাসরি ফেসবুক লাইভে অগ্নিমিত্রা পলের নেওয়া বিজেপির রাজ্য সভাপতির সাক্ষাৎকারে তারই ইঙ্গিত মিলেছে। মুখ্যমন্ত্রী আম্ফান আর করোনা বিধ্বস্ত রাজ্যে কাজ না করে কেবল রাজনীতি করে চলেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। একাধিক ইস্যুতে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন দিলীপ ঘোষ। ফেসবুক লাইভে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেছেন মমতা সরকার নিজে কাজ না করে রাজনীতি করছেন আর অন্যদের বলছেন  রাজনীতি করবেন না। অথচ যেখানে নির্বাচিত সরকার হিসেবে তাঁরই কাজ করার কথা আর অন্যদের রাজনীতি করার কথা। সেদিকে আমল না দিয়ে অন্যরা কেন রাজনীতি করছে তা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্য সরকার মমতা ।

.
আম্ফান বিধ্বস্ত বাংলাকে স্বাভাবিক করার জন্য কারোর পরামর্শ নেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি মুখ্যমন্ত্রী। এখনও স্বাভাবিক হয়নি শহরের একাধিক এলাকা এমনই অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ। আম্ফান বিধ্বস্ত শহরের পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুরসভার আরও তৎপর হওয়া উচিত ছিল বলে প্রকাশ্যেই ফিরহাদের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ সাধন পাণ্ডে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি অভিযোগ করেছেন দলনেত্রী দলের নেতাদের নিয়ে চলছেন না। তাই দলের অন্তদেই মতবিরোধ তৈরি হয়েছে। তাঁকে মানতে চাইছেন না দলের নেতারা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য মুকুল রায় থেকে শুরু করে, সব্যসাচী দত্ত, শোভন চট্টোপাধ্যায় সহ তৃণমূলের তাবর নেতা কিন্তু এখন বিজেপিপন্থী এবং বিজেপির সদস্য।
.
এছাড়াও বিজেপি নেতা কর্মীদের একাধিক জায়গায় ত্রাণ বিলিতে বাধা দেওয়া হয়েছে। অথচ কেন্দ্রের পাঠানো রেশনের চাল-ডাল চুরি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ। প্রধানমন্ত্রী এসে টাকা দিয়ে গিয়েছেন কিন্তু সেই টাকা একটিও মানুষের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ।
.
পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে ভয় পাচ্ছেন মমতা। কারণ পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরে এলেই কাজ চাইবে খাবার চাইবে আর তাদের সেটা দেওয়ার ক্ষমতা মুখ্যমন্ত্রীর নেই। মুখে চাকরি দিয়েছি বললেও বাস্তবে রাজ্যে কোনও কর্মসংস্থানই হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলিতে কাজের জন্য চলে গিয়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা।
.

No comments:

Post a comment