শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে কোচবিহারে মুসলিম তৃণমূল নেতাকে সাসপেন্ড করলো দল! - VedasBD.com

Breaking

Monday, 18 May 2020

শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে কোচবিহারে মুসলিম তৃণমূল নেতাকে সাসপেন্ড করলো দল!


ধর্ষণের অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নুর আলম হোসেনকে দল থেকে সাসপেন্ড করা হল। এদিন কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মন ও কার্যকরী সভাপতি পার্থপ্রতিম রায় সাংবাদিক সম্মেলন করে এই ঘোষণা করেন। জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মন জানান, নুর আলম হোসেনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে তাকে শো-কজ নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে তার কোনও সঠিক উত্তর আমাদের মেলেনি। তাই তাকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।
.
কোচবিহার জেলা পরিষদের বনভূমি কর্মধ্যক্ষ তথা তৃণমূল কংগ্রেসের সিতাই বিধানসভা কেন্দ্রের কনভেনার নুর আলম হোসেনের বিরুদ্ধে দিনহাটা এক শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। তার বিরুদ্ধে ওই শিক্ষিকা দিনহাটা থানায় একটি মামলাও দায়ের করেছেন। তবে এখনও পর্যন্ত পুলিশ তাকে গ্রেফতার না করলেও তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যে নেতৃত্বে নির্দেশেই তাকে দল থেকে সাসপেন্ড করা হল। তবে নুর আলম হোসেন এখনও গ্রেফতার না হওয়ায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এছাড়াও অনেকে দাবি করছেন এই ঘটনার সাথে পুলিশের হাত আছে।
.
উল্লেখ্য, কোচবিহার জেলা পরিষদের বনভূমি কর্মাধ্যক্ষ তৃণমূল নেতা নুর আলম হোসেনের বিরুদ্ধে গত বছরের ২৬ অক্টোবর জোরপূর্বক এক শিক্ষিকাকে ধর্ষণ করেন। ঘটনার পর ওই মহিলা মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন। চিকিৎসা করানোর পর যখন সুস্থ হন, তখন সমস্ত বিষয়টি তিনি খুলে বলেন। এরপর বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হলে ওই মহিলার স্বামীকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেওয়া হয়। বিভিন্ন সময় মারধরও করা হয় তাকে। এরপর চলতি মাসের তিন তারিখ সন্ধ্যায় ওই ব্যক্তি দিনহাটা থানায় নুর আলম হোসেন বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

No comments:

Post a comment