কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ চেয়ে অমিত শাহকে চিঠি দিলীপের! বললেন বাংলার আইন-শৃঙ্খলা তলানিতে! - VedasBD.com

Breaking

Tuesday, 19 May 2020

কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ চেয়ে অমিত শাহকে চিঠি দিলীপের! বললেন বাংলার আইন-শৃঙ্খলা তলানিতে!


রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে (Amit Shah) চিঠি দিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। চিঠিতে তেলেনিপাড়ার ঘটনা, টিকিয়াপাড়াতে পুলিশের উপর হামলা এবং হরিশ্চন্দ্রপুরের ঘটনার কথা উল্লেখ করে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ‘অবনতি’র কথা তুলে ধরেন মেদিনীপুরের সাংসদ। এবং দ্রুত এ বিষয়ে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ দাবি করেন তিনি।
.
এদিকে করোনা পরিস্থিতিতে বিরোধীদের একজোট করতে বিরোধী দলগুলির বৈঠক ডেকেছেন সোনিয়া গান্ধী। মঙ্গলবার তিনি বলেন, “মোদিজির নেতৃত্বে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য যে ফ্রন্ট তৈরি হয়েছে তাতে হয়তো ওদের (বিরোধীদের) আস্থা কম আছে। তাই হয়তো এই ‘করোনা ফ্রন্ট’ তৈরি হচ্ছে। লোকসভা ভোটের আগে চতুর্থ ফ্রন্ট তৈরির চেষ্টা করে কি দুর্দশা হয়েছিল সবার জানা আছে। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে নয়, এখন করোনার বিরুদ্ধে লড়াই দরকার। গত একমাস ওরা (বিরোধীরা) কি করছিল?” উল্লেখ্য, মে মাস পর্যন্ত লকডাউন চলবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র সরকার। যদিও, মঙ্গলবার রাজ্য বিজেপি দপ্তরের দরজা খুলেছে। একজন করে সাধারণ সম্পাদক রাজ্য দপ্তরে থাকবেন বলে জানা গিয়েছে।
.
এদিকে, আমফান ঘূর্ণিঝড়ে সাধারণ মানুষের সহায়তায় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নির্দেশে হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে বঙ্গ বিজেপি। এ প্রসঙ্গে দলের অন্যতম শীর্ষনেতা মুকুল রায় মঙ্গলবার জানান, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নির্দেশ এই পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। বিভিন্ন জেলার নেতাদের বলা হয়েছে প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে মাইকিং করে সাধারণ মানুষকে সতর্ক করার জন্য। অমিত শাহ ও জে পি নাড্ডা নির্দেশ দিয়েছেন, এই বিপদে মানুষের পাশে থাকতে হবে। ঘূর্ণিঝড়ে কোনও বিপদ হলে সাহায্যের জন্য রাজ্য বিজেপির কন্ট্রোল রুমে থাকবেন দলের অন্যতম রাজ্য সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়।
.
ঘূর্ণিঝড়ের মোকাবিলায় রাজ্যে দলের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বাংলার বিজেপি নেতা, সাংসদ, বিধায়কদের নির্দেশ দিয়েছেন, প্রভাবিত এলাকায় মানুষদের সহায়তা করার জন্য। বিজেপি কর্মীদের বিভিন্ন এলাকায় শিবির করার জন্য বলেছেন। সেখানে খাবার, জল এবং ওষুধের ব্যবস্থা করতে হবে। অসহায় মানুষদের সুরক্ষিত স্থানে নিয়ে যেতে হবে। কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে বঙ্গ বিজেপিকে এমনই বার্তা দিয়েছেন বিজয়বর্গীয়।

No comments:

Post a comment