লুকিয়ে থাকা তাবলিগের সদস্যদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করল উত্তরাখণ্ডের পুলিশ! - VedasBD.com

Breaking

Tuesday, 7 April 2020

লুকিয়ে থাকা তাবলিগের সদস্যদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করল উত্তরাখণ্ডের পুলিশ!


একদিন আগেই ঘোষণা উত্তরাখণ্ডের পুলিশ জানিয়েছিল যে তাবলিগের লুকিয়ে থাকা সদস্যরা সামনে না এলে তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ শুরু করা হবে। যেমন কথা তেমন কাজ। ২৪ ঘণ্টার সময়সীমা শেষ হতেই রুরকি ও হরিদ্বারের দুই জামাত সদস্যের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করল উত্তরাখণ্ডের পুলিশ।
.
রবিবার সন্ধ্যায় উত্তরাখণ্ডের ডিরেক্টর জেনারেল অব পুলিশ অনিল কে রাতুরি উত্তরাখণ্ডে ফিরে আসা তাবলিগ–ই–জামাত এর ধর্মসভায় যোগ দেওয়া সবাইকে প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করার কথা ঘোষণা করে জানান, ”যদি ৬ এপ্রিলের পর জানতে পারা যায় যে কেউ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে নিজেকে আড়াল করে রেখেছেন এবং তার থেকে অঞ্চলে সংক্রমণ ছড়িয়েছে, তাহলে তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুসারে খুন করার চেষ্টা সহ বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে অভিযোগ আনা হবে। যদি আশেপাশের গ্রামে বা অঞ্চলে কারোর মৃত্যু হয় তাহলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের হবে এবং কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
.
সেই মতোই রুরকি ও হরিদ্বারের দুই ব্যক্তি পুলিশের দেওয়া সময়সীমার মধ্যে মেডিক্যাল চেক আপের জন্য উপস্থিত হননি। এরপরেই তাদের কল লোকেশন ট্রেস করে তাদের পাকড়াও করে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭ ধারা অনুযায়ী খুনের চেষ্টার অভিযোগ রুজু করা হয়। ওই দুই ব্যক্তিকেই আটক করে পুলিশ স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে।
.
পুলিশ ডিরেক্টর জানান, ‘আমাদের দেওয়া সময়সীমার মধ্যে ১৮০ জন আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। এরমধ্যে ১৫১ জনই হরিদ্বারের, ১২জন নৈনিতালের, ৯ জন দেরাদুনের, আর বাকি সাতজন পাউড়ি গারোয়াল জেলার। তাদের সকলকে কোয়েরেন্টনে রেখে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। এছাড়া উত্তরাখণ্ডের আরো ৩০০ জন জামাত সদস্যের ওপর নজর রাখা হচ্ছে। তারা এই মুহূর্তে অন্য রাজ্যে আছেন। তারা যাতে কোনও ভাবেই এই রাজ্যে প্রবেশ না করেন সেটা দেখা হচ্ছে। লুকিয়ে উত্তরাখণ্ডে প্রবেশ করলেই তাদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করা হবে।’

No comments:

Post a comment