করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা আর্থিক অনুদান দিলেন শচীন টেন্ডুলকার! - VedasBD.com

Breaking

Friday, 27 March 2020

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা আর্থিক অনুদান দিলেন শচীন টেন্ডুলকার!

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা আর্থিক অনুদান দিলেন শচীন টেন্ডুলকার!


দেশবাসীকে একজোট হতে শিখিয়েছে মারণ করোনা। কঠিন পরিস্থিতিতে এই মহামারির বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াই করছে সকলে। আক্রান্তরা যাতে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন, তার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অনেকেই। বিনোদন জগৎ থেকে খেলার দুনিয়ার তারকারা আর্থিক অনুদান দিচ্ছেন। ব্যতিক্রমী নন মাস্টার ব্লাস্টারও। COVID-19 মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য করছেন শচীন তেণ্ডুলকর।
.
করোনা  থেকে সুরক্ষিত থাকতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার প্রয়োজনীয়তার কথা জানাতে ভিডিও পোস্ট করেছিলেন ক্রিকেট ঈশ্বর। কীভাবে হাত ধুতে হবে, তাও দেখিয়ে দিয়েছিলেন। সকলকে বাড়িতে থেকে দেশসেবা করার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। এবার তিনি আর্থিকভাবেও এই রোগ মোকাবিলায় পাশে দাঁড়ালেন। জানা গিয়েছে, করোনা রুখতে প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে ২৫ লক্ষ এবং মরারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শচীন।
.
করোনার গ্রাস থেকে রাজ্য তথা দেশকে রক্ষা করতে ইতিমধ্যেই বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। আক্রান্তদের চিকিৎসার প্রয়োজনে রাজ্য সরকারকে ইডেন ব্যবহারের প্রস্তাব দিয়েছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। দুস্থ পরিবারগুলিকে ৫০ লক্ষ টাকার চালও দিচ্ছেন দাদা। এবার সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ালেন শচীনও। এদিকে, বরোদা পুলিশ এবং স্বাস্থ্য দপ্তরে চার হাজার মাস্ক বিলি করেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ইরফান ও ইউসুফ পাঠান। করোনা রুখতে পুণের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার মাধ্যমে দুস্থদের জন্য এক লক্ষ টাকা পৌঁছে দিয়েছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিও। এদিন ৪২ লক্ষ টাকা অনুদানের সিদ্ধান্ত নেয় গুজরাটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থাও। প্রধানমন্ত্রীর করোনা ত্রাণ তহবিলে ২১ লক্ষ এবং মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২১ লক্ষ টাকা দেবে সংস্থা।
.
ভারতের মতোই উদ্বিগ্ন বাংলাদেশও। করোনার কারণে সে দেশেও সব ধরনের খেলাধুলো বন্ধ। নিজেদের দেশের আক্রান্তদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররাও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সেন্ট্রাল চু্ক্তিতে থাকা মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাহমুদুল্লাহ, লিটন দাসের মতো ১৭ জন ক্রিকেটার তাঁদের বেতনের অর্ধেক অনুদান হিসেবে দেবেন বলে জানিয়েছেন। এছাড়া চুক্তির বাইরে থাকা যে ১০ ক্রিকেটার গত তিনমাস নিয়মিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন, তাঁরাও দেবেন বেতনের ৫০ ভাগ। অর্থাৎ ২৭ জন ক্রিকেটারের থেকে কর বাদ দিয়ে মিলবে ২৬ লক্ষ টাকা। এই অর্থ করোনার প্রকোপ মোকাবিলায় গঠিত খাতে জমা পড়বে। এছাড়া ব্যক্তি গত অনেকে আর্থিক সাহায্য করছেন।

No comments:

Post a comment